আমেরিকা যেভাবে স্বাধীনতা লাভ করল

আন্তর্জাতিক
আমেরিকার স্বাধীনতার যুদ্ধ চলেছিল ১৭৭৬ সাল থেকে ১৭৮৩ সাল পর্যন্ত যাকে বিপ্লবী যুদ্ধ বলেও বর্ণনা করা হয় । ব্রিটেনের কোনো রকম প্রতিনিধিত্ব ছাড়া কর আরোপ করার প্রতিবাদের মধ্যে দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা আন্দোলন আরাম্ভ হয় ।
উত্তর আমেরিকার ১৩ টি কলোনি ব্রিটেনের বিরুদ্ধে স্বাধীনতা ঘোষণা করে ১৭৭৬ সালের জুলাইতে । কিন্তু তাদের মধ্যে যুদ্ধ শুরু হয়েছিল ১৭৭৫ সালের এপ্রিল মাস থেকে । ব্রিটিশ সেনা কর্মকর্তা চার্লস কর্নওয়ালিসর টানা কয়েক বছর যুদ্ধের পর ফরাসি বাহিনী ও জর্জ ওয়াশিংটনের যৌথ বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করে । আমেরিকার যুদ্ধ সমাপ্তি ঘটলেও আমেরিকার সাথে যুদ্ধ সমর্থনকারী দেশ স্পেন, ফ্রান্স ও তৎকালীন ডাচ রিপাবলিকের সাথে ব্রিটেনের যুদ্ধ চলমান থাকে ।
১৭৮৩ সালের ৩ সেপ্টেম্বর ট্রিটি অব প্যারিসের মাধ্যমে ব্রিটেন আমেরিকার সার্বভৌমত্ব এবং সীমানা স্বীকার করে । ১৭৮৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ওই চুক্তিটি জানুয়ারি মাসে গ্রহণ করে । এরই সাথে আলাদা কয়েকটি যুক্তির মাধ্যমে স্পেন, ফ্রান্স ও ডাচ রিপাবলিকের সাথে ব্রিটেনের যুদ্ধের অবসান হয় । তাই প্রতি বছর ৪ জুলাই মানে আজকের এই দিনটি তারা স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালন করে মার্কিনিরা ।
তবে ৪ জুলাই কেন আমেরিকার স্বাধীনতা দিবস হলো ?
– জুলাইয়ের ২ তারিখ আমেরিকার স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রের প্রথম খসড়া লেখা হয় । এরপর লেখার শব্দ, অক্ষর এবং বাক্য দুইদিন যাবৎ ঘষামাজা করার পর ৪ জুলাই কংগ্রেসে খসড়ার অনুমোদন দেওয়া হয় । তাই এই দিনটিকে ‘ডিক্লারেশন অব ইনডিপেনডেন্স’ এর অন্তর্ভুক্ত করা হয় । তার কিছুদিন পর ১৭৭৬ সালের আগস্ট মাসে এই ঘোষনাটি সুন্দর করে হাতে লিখে সেই কপিতে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা স্বাক্ষর করেন । প্রদর্শনের জন্য এটি জাতীয় সংরক্ষণশালায় ওয়াশিংটন ডিসিতে রাখা হয়েছে ।
ফিলাডেলফিয়ার জন ডানল্যাপ ৪ জুলাই ‘ডিক্লেয়ার অব ইনডিপেনডেন্স’ ঘোষণাপত্রটি প্রথমবারের মত তার ‘ডানল্যাপ ব্রডসাইড’ এ ছাপান। খবরের কাগজের মত চওড়া হচ্ছে ব্রডসাইড । যার এক পাশ ছাপানো হয় আর অন্য পাশ খালি থাকে । যাতে সহজেই দেওয়ালে লাগানো যায় । এটার অরজিনাল প্রিন্টেড কপি তখন তেরোটা স্টেটেই পাঠানো হয় । যাতে সবাই ঘোষণাপত্র এর লেখাগুলো পড়তে পারে । তাই এই ৪ জুলাইকে যুক্তরাষ্ট্র স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালন করে যাচ্ছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *